১০ হাজার টাকার মধ্যে সেরা কিছু মোবাইল

  1. Infinix Smart 2 pro: মাত্র ৮ হাজার টাকার মধ্যে যদি সুপার ফাস্ট, ভালো ক্যানকরা, ভালো সার্ভিস চান তাহলে ইনফিনিক্সের এ ফেনটি আপনার জন্যই। কারণ দামে কম হলেও এ ফোনটি যথেষ্ট ভালো।আমি নিজে প্রায় আড়াই বছর ধরে এটি ব্যবহার করেছি। আমি গেমিং করি নাই, তবে মাল্টিটাস্কিং করেছি।
  2. মাল্টিটাস্কিং এ ফোনকে পিছনে ফেলবে এমন ফোন ১০ হাজার টাকার মধ্যে নাই।
    মাল্টিটাস্কিং এ ফোনটি এত ভালো কাজ করে কল্পনাও করতেও পারবেন না।

ক্যামেরাঃ

ফেনটিতে রয়েছে 13MP + 2 MP এর ডুয়াল ক্যামকা।
ক্যামেরা কোয়ালিটি অসাধারণ বলতেই হবে।
বিলিভ মি আমি বর্তমানে ১৬ হাজার টাকার ফোন ব্যবহার করি, এটিতে তোলা ছবি আর Infinix smart 2 Pro এর তেলা ছবি প্রায় সেইম ই বলা যায়।
খুব একটা ডিফারেন্স কিন্তু নেই।

এমনকি অনেক ক্ষেত্রে আরো ভালে ছবি তোলা যায়।
সেলফি ক্যামেরা হিসেবে থাকছে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা, যেটির কোয়ালিটি মোটামুটি ভালোই।
এছাড়া ফোনটির ফিঙ্গারপ্রিন্টও অনেক ফাস্ট কাজ করে।
ব্যটারিঃ
ফোনটিতে রয়েছে ৩০৫০ mAh এর লিথিয়াম পলিমারের ব্যাটারি। আপনি যদি একটানা নেট ব্রাউজিং করেন তাহলে ৫-৬ ঘন্টা ব্যাকাপ পাবেন, আমি একটানা নেট ব্রাউজিং করে দেখছি।

ডিসপ্লেঃ
ফোনটির ডিসপ্লেতে রয়েছে ৭২০ পিক্সেলের ডিসপ্লে।ডিসপ্লে কোয়ালিটি মোটামুটি ভালোই।

চিপসেটঃ

ফোনটিতে চিপসেট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও সিরিজের MT37।
প্রসেসরঃ
এতে রয়েছে অক্টাকোর 1.8 GHz এর একটি প্রসেসর

ফোনটি আসলে কোন গেমিং ফোন না। তবে টুকটাক সব কাজই চালিয়ে নেওয়া যায়।

একজন ইউজার হিসেবে বলছি ফোনটি খুবই ভালো,ভালো পারফরমেন্স দেয়। হেভি ইউজার না হলে ফোনটি ব্যবহার করে আপনি মজা পাবেন। এ ফোন ব্যবহার করলে আপনি হতাশ হবেন না সিউর থাকেন।
বর্তমানে এর মার্কেট প্রাইজ হচ্ছে ৮,০০০ টাকা।
আমি ত সম্পূর্ণ সেটিসফাইড। আড়াই বছর ব্যবহার করে ৩ হাজারে বিক্রি করে দিছি।😁

৭. Xiaomi Redmi 9A:

বিশ্বের টপ ক্লাস ব্র্যান্ড হলো শাউমি। আইফোনের পরেই যাদের অবস্থান।( কোয়ালিটি তে) শাউমির ফোনের জনপ্রিয়তা সারা বিশ্বজুড়েই। সম্প্রতি শাউমিও মিড লেভেলের ইউজারদের জন্য ফোন তৈরী করতে শুরু করেছে। যেগুলো ১০ হাজার টাকার মধ্যেই হয়ে থাকে।

Xiaomi Redmi 9A হচ্ছে এমন একটি ফোন। লো বাজেটের মধ্যে দারুণ ডিজাইন এবং ভালো প্রসেসর চাইলে এ ফোনটি নিতে পারেন।


ডিসপ্লেঃ


শাউমির এ ফোনে রয়েছে 6.3 ইঞ্চির আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে। রেজুলেশন হচ্ছে ৭২০ x ১৬০০ পিক্সেল। পিপিআই ২৬৯। ফোনটির ওজন ১৯৪ গ্রাম।
ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে Android 10 (Q)।

প্রসেসরঃ


অক্টা-কোর 2.0 GHz Cortex- A53।

ক্যামেরাঃ


এর পিছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের একটি দারুন ক্যামেরা। যেটির ছবি কোয়ালিটি মোটামুটি ভালোই।
এতে ভিডিও রেকর্ডিং হয় 1080p@30fps এ।

সেলফি ক্যামেরা হিসেবে আছে 5 MP এর ক্যামেরা।
এতে ভিডিও রেকর্ড হয় 720p@30fps এ।

ব্যাটারিঃ


এতে রয়েছে ৫,০০০ mAh এর লং লাস্টিং ব্যাটারি।
যেটিতে একটানা নেট ব্রাউজিং এ ১৮ ঘন্টার মত ব্যাকাপ পাওয়ার কথা আছে।

চিপসেটঃ

ফোনটিতে রয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও G25(12nm) চিপসেট।

ফোনটি দিয়ে ছোটখাটো সব কাজ করা যাবে, হালকা গেমিং ও করা যাবে।
ফোনটি কিন্তু হেভি ইউজারদের জন্য না।

এর দাম হচ্ছে ৯,৯৯৯ টাকা।

  1. Walton Primo HM5:

আমাদের ওয়ালটন যে ডিজাইনের দিক থেকে বিশ্বমানের এটা মানতেই হবে। এখন পর্যন্ত যতগুলো ফোন রিলিস করেছে সবগুলো ফোনের ডিজাইন দেখে প্রশংসা করতেই হয়। Walton Primo HM5 এর ডিজাইনও৷ অনেক সুন্দর।

ডিসপ্লেঃ


এতে রয়েছে ৬.১ ইঞ্চির ডিসপ্লে। 16M কালার সাপোর্ট করে এবং এর রেজুলেশন হচ্ছে ৭২০ x ১৫৬০ পিক্সেল। পিপিআই ২৬৯।

এতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে Android 10

প্রসেসর:


১.৮ GHz এর কোয়াড কোর প্রসেসর রয়েছে এতে। Cortex-A53 এবং GE8300 GPU রয়েছে।

এটি ৩/৬৪ এবং ৪/৬৪ দুটি ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যায়।

ক্যামেরাঃ


এর পিছনে রয়েছে ১৩ + ০.৩ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা। ভিডিও রেকর্ড হয় 1080p@30fps এ।

সেলফি ক্যামেরা হিসেবে আছে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। এতে ভিডিও রেকর্ড হয় ৭২০ পিক্সেলে।

ব্যাটারিঃ


এতে রয়েছে ৪,৯০০ mAh এর লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। শুধু নেট ব্রাউজিং এ ১৫ ঘন্টার মত ব্যাকাপ পাওয়া যাবে। এটিতে একটানা নেট ব্রাউজিং করলে ১৫ ঘন্টার মত ব্যাকাপ পাওয়া যায়।
এটিন ফুল চার্জ হতে সময় নেয় ২ ঘন্টার মত।

ফোনটির দাম হচ্ছে ৮,৫৯৯ টাকা।
হালকা পাতলা ব্যবহারের উদ্দেশ্য নিয়ে ফোনটি নেওয়া যেতে পারে। এটি ভারি কাজের জন্য উপযোগী না।

  1. Samsung A01:

পৃথিবী বিখ্যাত ব্র্যান্ড হচ্ছে স্যামসাং। যাদের ব্র্যান্ড পরিচিতি অনেকে বেশি। তবে এদের ফোন কতটুকু মানসম্মত হয় এ নিয়ে আমার সন্দেহ আছে।এর কারন স্যামসাং এর যতগুলো ফোন ব্যবহার করেছি কোনটিতেই আশানুরুপ ফলাফল পাইনি।

Samsung A01 ফোনের

ডিসপ্লেঃ


এতে রয়েছে ৭২০ x ১৫২০ পিক্সেলের আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে এবং পিপিআই ২৯৪।
এতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে Android 10(Q)

প্রসেসরঃ অক্টাকোর 1.95 GHz এবং Cortex-A53, GPU হচ্ছে Andreno 505।
প্রসেসর মোটামুটি ভালোই।

ক্যামেরাঃ


এতে রয়েছে ১৩ MP + ২ MP এর ডুয়াল ক্যামেরা। ভিডিও রেকর্ড হয় সর্বোচ্চ 1080p@30fps এ।
এর সেলফি ক্যামেরা হিসেবে রয়েছে 5MP এর ক্যামেরা। ক্যামেরা কোয়ালিটি মোটামুটি ভালোই।

ব্যাটারিঃ


এতে রয়েছে 3,000 mAh এর লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। আমি জানি অনেকে ব্যাটারি দেখে হতাশ হবেন। কিন্তু জেনে রাখুন স্যামসাং ব্যাটারির mAh কম থাকলেও ব্যাকাপ খুবই ভালো পাওয়া যায়।
এর দাম হচ্ছে 6,999 টাকা।
অবশ্য কম বাজেটের ফোনে এর থেকে বেশি কিছু আশা করাটা বোকামি।